টিচিং লার্নিং এর মাধ্যমে জ্ঞান অর্জনের সুযোগ! শেষ পর্যন্ত বিদায় পরীক্ষার চাপ! জ্ঞান অর্জনে নতুন পদ্ধতি

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

আর দিতে হবে না দ্বাদশ শ্রেণীর টেস্ট পরীক্ষা। টিচিং লার্নিং (Teaching Learning) এর মাধ্যমেই জ্ঞান লাভ করতে পারবেন পড়ুয়ারা।

শিক্ষাক্ষেত্রে অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। জীবনের প্রথম বোর্ড পরীক্ষা অর্থাৎ মাধ্যমিক সম্পন্ন হওয়ার পর থেকে শুরু হয় উচ্চ মাধ্যমিকের প্রস্তুতি পর্ব। তবে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় আসতে চলেছে নানা পরিবর্তন। এর আগেই পশ্চিমবঙ্গের উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা কাউন্সিল একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণীর সেমিস্টার পদ্ধতির পরীক্ষার কথা ঘোষণা করেছে। এবার উচ্চ মাধ্যমিকের ক্ষেত্রে বদলাতে চলেছে আরো একটি নিয়ম। এবার থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পর্বতের আর দিতে হবে না টেস্ট পরীক্ষা।

এতদিন পর্যন্ত উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার যে নিয়ম ছিল তাতে প্রতিটি পরীক্ষার্থীকে উচ্চ মাধ্যমিকের মূল সিলেবাসের উপর ভিত্তি করে একটি টেস্ট পরীক্ষা দিতে হতো এবং সেই টেস্ট পরীক্ষায় ভালো ভাবে উত্তীর্ণ হতে হতো। তবে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে বদলাচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা পদ্ধতি। একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণী মিলিয়ে মোট চারটি সেমিস্টারের পরীক্ষা দেবেন ছাত্র ছাত্রীরা। সিলেবাসের ক্ষেত্রেও আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে আসছে নানা পরিবর্তন। ইতিমধ্যে কাউন্সিল সেই সম্পর্কিত বিস্তারিত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেও দিয়েছে।

উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা কাউন্সিলের ঘোষণা করা নতুন নিয়ম অনুসারে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা টিচিং লার্নিং পদ্ধতিতে মোট চারটি সেমিস্টারের পরীক্ষা দেবেন। তাই তাদের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার আগে আলাদা ভাবে আগের মত আর টেস্ট পরীক্ষা দিতে হবে না। কাউন্সিলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে সমস্ত বিষয়গুলিতে প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষা হয় না অর্থাৎ ২০ নম্বরের প্রজেক্ট ও ৮০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে তাদের দুটি সেমিস্টারের ৪০ নম্বর করে পরীক্ষা নেয়া হবে। আর যেসব বিষয়গুলি ৩০ নম্বরের প্রাকটিক্যাল ও ৭০ নম্বরে লিখিত পরীক্ষা হয় তাদের দুটি সেমিস্টারে ৩৫ নম্বর করে পরীক্ষা দিতে হবে। যদিও প্র্যাকটিক্যাল বা প্রজেক্ট দুটি সেমিস্টারে দুবার হবে না। প্রাকটিক্যাল বা প্রজেক্ট একবারই নেওয়া হবে।

পড়ুনঃ  How to Become Millionaire : এই ৮ উপায়েই বদলে যাবে জীবন! কোটি টাকার মালিক হবেন আপনি!

টিচিং লার্নিং, সেমিস্টার এবং পরিবর্তিত সিলেবাস

উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা কাউন্সিল (WBCHSE) সম্প্রতি উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য নতুন নিয়ম জারি করেছে। এই নিয়ম অনুযায়ী, একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা টিচিং লার্নিং (Teaching Learning) পদ্ধতিতে মোট চারটি সেমিস্টার পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। এর ফলে, তাদের আলাদাভাবে টেস্ট পরীক্ষা দেওয়ার প্রয়োজন হবে না।

পরীক্ষা পদ্ধতি:

  • ২০ নম্বরের প্রজেক্ট ও ৮০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষার বিষয়গুলিতে দুটি সেমিস্টারে ৪০ নম্বর করে পরীক্ষা নেওয়া হবে।
  • ৩০ নম্বরের প্রাকটিক্যাল ও ৭০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষার বিষয়গুলিতে দুটি সেমিস্টারে ৩৫ নম্বর করে পরীক্ষা নেওয়া হবে।
  • প্রাকটিক্যাল বা প্রজেক্ট একবারই নেওয়া হবে, দুবার নয়।

সময় নির্ধারণ:

  • কাউন্সিলের নিয়ম অনুযায়ী, শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ভিত্তিক পড়াশোনার জন্য মোট ২০০ ঘন্টা সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।
  • প্রথম সেমিস্টারের জন্য ১০০ ঘন্টা এবং দ্বিতীয় সেমিস্টারের জন্য ৮০ ঘন্টা নির্ধারণ করা হয়েছে।
  • দ্বিতীয় সেমিস্টারে রেমিডিয়াল, টিউটোরিয়াল ক্লাস ও হোম অ্যাসাইনমেন্ট ক্লাসের জন্য ২০ ঘন্টা ধার্য করা হয়েছে।

সিলেবাসে পরিবর্তন:

  • নতুন পরীক্ষা পদ্ধতির পাশাপাশি, শিক্ষার্থীদের আধুনিক সমাজ ব্যবস্থার সাথে তাল মিলিয়ে সিলেবাসেও নানা পরিবর্তন আনা হয়েছে।
  • কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI) প্রযুক্তিও সিলেবাসে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

একাদশ শ্রেণীর ভূমিকা:

  • কাউন্সিলের নিয়ম অনুযায়ী, একাদশ শ্রেণীতে সংশ্লিষ্ট স্কুল ছাত্রছাত্রীদের পঠন-পাঠন এবং পরীক্ষা পদ্ধতির দিকে নজর রাখবে।
  • একাদশ শ্রেণীর ফলাফলের ভিত্তিতেই দ্বাদশ শ্রেণীতে পড়াশোনার বিশেষ সুযোগ পাবে শিক্ষার্থীরা।

দ্বাদশ শ্রেণীর পরীক্ষা:

  • দ্বাদশ শ্রেণীর দুটি সেমিস্টারই বোর্ড পরীক্ষা হবে।
  • কাউন্সিল কর্তৃক নির্ধারিত প্রশ্নপত্রেই দুটি সেমিস্টার পরীক্ষা দিতে হবে।

সংসদের নিয়ম অনুসারে শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ভিত্তিক পড়াশোনার জন্য মোট ২০০ ঘন্টা সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রথম সেমিস্টার এ থাকবে ১০০ ঘন্টা এবং দ্বিতীয় সেমিস্টার ৮০ ঘন্টা। সেই সঙ্গে দ্বিতীয় সেমিস্টারে থাকবে রেমিডিয়াল, টিউটোরিয়াল ক্লাস ও হোম অ্যাসাইনমেন্ট ক্লাসের জন্য ধার্য করা ২০ ঘন্টা। নতুন এই পরীক্ষা পদ্ধতির পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের আধুনিক সমাজ ব্যবস্থার সঙ্গে তাল মিলাতে পরীক্ষার সিলেবাসে এসেছে নানা পরিবর্তন।

পড়ুনঃ  Summer Projects 2024 : ছাত্রছাত্রীদের সৃজনশীলতা বিকশিত করার প্রজেক্ট, শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকদের জন্য!

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা AI প্রযুক্তিও যুক্ত হয়েছে সিলেবাসে। কাউন্সিলের নিয়ম অনুযায়ী একাদশ শ্রেণীতে সংশ্লিষ্ট স্কুল ছাত্র ছাত্রীদের পঠন পাঠন এবং পরীক্ষা পদ্ধতির দিকে নজর রাখবে। একাদশ শ্রেণীর ফলাফলের ভিত্তিতেই দ্বাদশ শ্রেণীতে পড়াশোনার বিশেষ সুযোগ পাবে ছাত্র ছাত্রীরা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য দ্বাদশ শ্রেণীর দুটি সেমিস্টারই হবে বোর্ড পরীক্ষা। কাউন্সিলে নির্ধারণ করে দেওয়া প্রশ্নপত্রই পরীক্ষা দিতে হবে দুটি সেমিস্টারে।

নতুন নিয়মের প্রভাব: টিচিং লার্নিং

  • শিক্ষার্থীদের উপর পরীক্ষার চাপ কমবে।
  • শিক্ষক-শিক্ষিকারা টিচিং-লার্নিং প্রসেসে আরও মনোযোগ দিতে পারবেন।
  • শিক্ষার্থীরা সারা বছর ধরে পড়াশোনায় মনোযোগী হবে।
  • মুখস্থ বিদ্যা কমে জ্ঞান অর্জনে গুরুত্ব বৃদ্ধি পাবে।
WBnews24x7 Desk

“Wbnews247.com” সঠিক এবং নির্ভরযোগ্য বাংলা নিউজ প্লাটফর্ম। এখানে শিক্ষা, প্রকল্প, অর্থনীতি, টেক, সরকারি কর্মচারী, টেলিকম সম্পৃক্ত সকল জানা এবং অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। “Wbnews247” এর লক্ষ্য সবার মাঝে সঠিক তথ্য ছড়িয়ে দেয়া। যদি আপনি বিভিন্ন বিষয়ে সঠিক খবর বাংলায় পেতে চান তাহলে নিয়মিত চোখ রাখুন Wbnews247.com নিউজ পোর্টালে।

Leave a Comment

error: Content is protected !!