EWS: এই সার্টিফিকেট থাকলেই কেল্লাফতে! কীভাবে লাভ পাবেন, দেখুন

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ এমনিতেই সরকারি চাকরী এখন যেন অমাবস্যার চাঁদ। তবে এবারে কেন্দ্রের বিশেষ উদ্যোগে চালু হয়ে গেল এক নতুন সুবিধা। এই EWS সার্টিফিকেট থাকলে মিলবে বাড়তি সুবিধা। কীভাবে বানাতে হয় এই EWS Certificate, কারা পাবেন না এই সার্টিফিকেট, এই সকল বিষয়ে জেনে রাখুন আজকের এই প্রতিবেদনে।

Who and How to get EWS Certificate

ভারতবর্ষের জনসাধারণের মধ্যে অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল বিভাগ অর্থাৎ EWS শ্রেণীটি হল ভারতীয় সমাজ ব্যবস্থার একটি বড় অংশ যারা অ-সংরক্ষিত বিভাগের অন্তর্গত। এই EWS শ্রেণীতে এমন মানুষরা অন্তর্ভুক্ত রয়েছেন যারা ST/SC/OBC-এর বর্ণ বিভাগের অন্তর্গত নয়। অথচ যারা ইতিমধ্যেই ভারতীয় শ্রেণীগত সংরক্ষণের সুবিধা ভোগ করছেন। ভারত সরকারের পক্ষ থেকে এই শ্রেণীর অন্তর্গত মানুষদের জন্য ১০% সংরক্ষণ চালু করা হয়েছে। এই সংরক্ষণের সুবিধা তারাই উপভোগ করতে পারবেন যারা ST/SC/OBC বিভাগে অন্তর্ভুক্ত নয় কিন্তু অ-সংরক্ষিত বিভাগের অন্তর্গত এবং অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল।

অর্থনৈতিক ভাবে দুর্বল বিভাগ বা সাধারণ বিভাগের EWS শ্রেণীভুক্ত মানুষদের জন্য সরকারি চাকরি এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১০% সংরক্ষণ ব্যবস্থা বর্তমান ভারতে চালু আছে। ২০১৯ সালে ভারতের ইউনিয়ন পরিষদ দ্বারা উক্ত শ্রেণীর জন্য এই সংরক্ষণটি অনুমোদিত হয়েছিল। যে কোনো সরকারি চাকরিপ্রার্থী বা কোনো ছাত্র ছাত্রী তাদের পছন্দের কোনো ইনস্টিটিউটে ভর্তির জন্য অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল বিভাগ বা EWS-এর অধীনে এই ১০% সংরক্ষণ উপভোগ করতে পারবেন। তবে এই সংরক্ষণের সুবিধা উপভোগ করার জন্য অবশ্যই EWS সংশাপত্র প্রয়োজন হবে। এই শংসাপত্র তৈরি করার জন্য যে যে প্রয়োজনীয় নথিপত্র গুলি লাগবে সেগুলি হল-আধার কার্ড, প্যান কার্ড, আয়ের শংসাপত্র, ব্যাংক এর নথি, জমি প্রমাণ পত্র, আবাসিক শংসাপত্র বা আবাসিক প্রমাণ স্ব-ঘোষণা বা হলফনামা। যেভাবে EWS সংশাপত্র পাওয়ার জন্য আবেদন জানাতে হবে সেটি দেখে নিন।

পড়ে দেখুন, স্বামী বিবেকানন্দ এর টাকা নিয়ে যা জানা গেল! এখুনি দেখুন

১) প্রথমেই অনলাইন থেকে Annexure ফর্ম A, B এবং C ডাউনলোড করে নিতে হবে। ফর্ম A এবং B সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করে নির্দিষ্ট নথিপত্র সহ পূর্ণ স্বাক্ষর করতে হবে। ফর্ম C তে রঙিন ছবি লাগাতে হবে।
২) যিনি এই শংসাপত্রের জন্য আবেদন করবেন তার মোট তিন কপি রঙিন ছবি প্রয়োজন হবে এবং সেই সঙ্গে আধার কার্ড, প্যান কার্ড, রেশন কার্ড, মাধ্যমিকের অ্যাডমিট কার্ড সহ আরো বিভিন্ন প্রয়োজনীয় নথিপত্র দরকার হবে। নিচে ফর্ম দেওয়া থাকছে।

৩) SDO থেকে অনলাইনে মাধ্যমে রেসিডেন্সিয়াল সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে হবে।
৪) পরিবারের কোন ব্যক্তি সরকারিভাবে সরকারি বা বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত হলে তার পূর্ববর্তী তিন বছরের ITR জমা দিতে হবে।
৫) জাতি সংক্রান্ত দলিলে যদি কোন সাব কাস্ট এর কথা উল্লেখ করা থাকে তাহলে সেই নথির জেরক্স কপি জমা করতে হবে।
৬) এছাড়াও বাড়ির পর্চা ও ওয়ারিশান সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য প্রয়োজন হবে।

পড়ুনঃ  রাজ্যের সরকারি কর্মীদের ডিএ, আন্দোলন পাচ্ছে নতুন গতি! এবারে চলবে একটানা

এই EWS Certificate এর মেয়াদ রয়েছে। এর পরে আর সেটি ব্যবহার করা যাবে না। এই মেয়াদকাল হচ্ছে ১ এপ্রিল থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত। এর মধ্যে কাজে না লাগলে পুনরায় সেটি করতে হবে। এই সংরক্ষণ নীতিটি প্রথম ১৯৫০ সালে তৈরি করা হয়েছিল, যেখানে এটি তফসিলি জাতি (SC) এবং তফসিলি উপজাতি (ST) এর জন্য আসন সংরক্ষণের অন্তর্ভুক্ত ছিল। এরপরে, ৬% আসন তফসিলি জাতিদের জন্য, ৭% তপশিলি উপজাতিদের জন্য এবং ৫% অন্যান্য অনগ্রসর শ্রেণীর (OBC) জন্য সংরক্ষিত রাখা হয়েছিল।
এমন আরও নানা আপডেট পেতে সঙ্গে থাকুন। ধন্যবাদ।
Written by Priya Biswas.

WBnews24x7 Desk

“Wbnews247.com” সঠিক এবং নির্ভরযোগ্য বাংলা নিউজ প্লাটফর্ম। এখানে শিক্ষা, প্রকল্প, অর্থনীতি, টেক, সরকারি কর্মচারী, টেলিকম সম্পৃক্ত সকল জানা এবং অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। “Wbnews247” এর লক্ষ্য সবার মাঝে সঠিক তথ্য ছড়িয়ে দেয়া। যদি আপনি বিভিন্ন বিষয়ে সঠিক খবর বাংলায় পেতে চান তাহলে নিয়মিত চোখ রাখুন Wbnews247.com নিউজ পোর্টালে।

Leave a Comment

error: Content is protected !!