CAA Rules: বেশ কিছু নিয়মে নাগরিকত্ব! দেখে নিন

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

সম্পূর্ণ অনলাইনের মাধ্যমেই করা যাবে সিএএ আবেদন। কি কি নথিপত্র (CAA Rules) লাগবে জেনে নিন বিস্তারিত।

২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পরিচালিত কেন্দ্রীয় সরকার দ্বিতীয় বারের জন্য ভারতবর্ষের ক্ষমতায় আসার পর এদেশে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন পাশ করার প্রয়াস শুরু করেছিলেন। আজ থেকে চার বছর আগে সংসদ ভবনের অনুমোদন পেয়েছিল এই বিল। কিন্তু আইন হিসেবে এতদিন পর্যন্ত তা কার্যকর করা সম্ভব হয়নি।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বা সিএএ নিয়ে দীর্ঘ বিলম্বের পর অবশেষে সোমবার অর্থাৎ গতকাল জারি করা হলো এই আইন। গতকাল সন্ধ্যায় স্বরাষ্ট্র দপ্তরের তরফ থেকে বিশেষ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এই বিলের সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য প্রকাশ্যে আনা হয়।

স্বরাষ্ট্র দপ্তরের দেওয়া বিজ্ঞপ্তি অনুসারে বলা হয়েছে ‘২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে ভারতের প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তান থেকে ধর্মীয় বা অন্যান্য কোন কারণে ভারতে আগত সমস্ত শরণার্থীদের আশ্রয় এবং নাগরিকত্ব প্রদান করবে কেন্দ্র‘।

কেন্দ্রের বক্তব্য অনুসারে ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার হওয়া, ওইসব দেশ থেকে এ দেশে পালিয়ে আসা হিন্দু, খ্রিস্টান, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ, পার্শী ইত্যাদি সম্প্রদায়ের মানুষরা আবেদন জানালে তাদের নাগরিকত্ব প্রদান করা হবে। আগ্রহী আবেদনকারীরা যাতে নিজেদের নাগরিকত্ব লাভের জন্য আবেদন জানাতে পারেন তার জন্য সম্পূর্ণ অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন প্রক্রিয়া চালু করে দিয়েছে স্বরাষ্ট্র দপ্তর। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এই নাগরিকত্ব সংশোধন আইনকে দেশের একটি কর্তব্য বলে উল্লেখ করে জানিয়েছেন আবেদনকারীদের নাগরিকত্ব লাভের জন্য তাদের কাছে অন্য কোন ধরনের নথিপত্র চাওয়া হবে না।

আবেদনকারীরা যাতে অনলাইনে আবেদন করতে পারেন তার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে সিএএ পোর্টাল নামের নতুন একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্ম উন্মোচন করা হয়েছে। জানা গেছে আগ্রহী আবেদনকারীদের প্রথমে এই পোর্টালে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে এখানে কিছু নথি আপলোড করতে হবে এবং তারা ভারতে কেন এসেছিলেন সেই সম্পর্কিত বিস্তারিত বিবরণ দিতে হবে। এরপর দিতে হবে নিজের একটি বৈধ মোবাইল নম্বর এবং এই মোবাইল নম্বরে একটি ওটিপি আসবে। ওটিপিটি সঠিক ভাবে বসিয়ে দিতে হবে এবং সাবমিট করলে কেন্দ্রীয় সরকার এই সমস্ত নথি গুলি যাচাই করবে।

সরকারের তরফ থেকে যদি সমস্ত নথিপত্রে সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয় সে ক্ষেত্রে সেই নাগরিককে এই দেশের নাগরিকত্ব প্রদান করা হবে। তবে সিএএ পোর্টালে কি কি নথিপত্র জমা দিতে হবে সে বিষয়ে এখনো পর্যন্ত সরকারের তরফ থেকে স্পষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি। তবে বলা হয়েছে একজন ভারতীয় নাগরিককে হলকনামার মাধ্যমে আবেদনকারীর চরিত্র সম্পর্কে সাক্ষ্য দিতে হবে।

সেই সঙ্গে আবেদনকারীকে ভারতীয় সংবিধানে থাকা কোন একটি ভাষা সম্পর্কে অবগত হতে হবে। সেই ভাষায় লিখতে, কথা বলতে এবং পড়তে জানতে হবে। জানা গেছে নতুন এই আইনের মাধ্যমে নাগরিকত্ব লাভের জন্য আবেদনকারীকে কোনো ভাবেই হেনস্থার সম্মুখীন হতে হবে না।

লিখেছেনঃ অজয় গুপ্ত।

পড়ুনঃ  Smartphone Under 15K: বাজারের সেরা কিছু মোবাইল ফোন, দাম সাধ্যের মধ্যেই! দেখুন
Gupta Ajay

নমস্কার, আমি অজয় গুপ্ত। আমি একজন কনটেন্ট রাইটার। বিগত ৫ বছর ধরে টেক, ব্যবসা, অনলাইন ইনকাম, লাইফস্টাইল ইত্যাদি বিষয়ে লেখালিখি করছি। লেখা নিয়ে কোন মতামত থাকলে কমেন্টে জানাতে পারেন। Ajay Gupta Senior Content Writter

Leave a Comment

error: Content is protected !!