Krishak Bandhu : রাজ্যের কৃষকরা পাবে বিনামূল্যে সেচযন্ত্র, আবেদন করুন!

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

বিনামূল্যে চাষের উপযোগী যন্ত্র দিচ্ছে রাজ্য (Krishak Bandhu)। কাদের দেওয়া হবে এই সুযোগ? জেনে নিন।

কৃষি প্রধান দেশ আমাদের, তবুও কৃষকদের জীবনযাত্রার মান উন্নতিতে বারবার প্রশ্ন উঠে। এই সমস্যা সমাধানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৯ সালে কৃষক বন্ধু প্রকল্প চালু করেন। এই প্রকল্পে কৃষকদের আর্থিক সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি, এবার নতুন সুবিধা হিসেবে বিনামূল্যে সেচ যন্ত্র দেওয়া হবে।

কৃষক বন্ধু প্রকল্প (Krishak Bandhu)

এই দেশের অর্থনীতির মূল ভিত্তি হলো কৃষিকাজ। কিন্তু আমাদের দেশের কৃষকরা অত্যধিক পরিশ্রম করে সারা বছর ফসল ফলালেও তারা চিরকাল দরিদ্র সীমার নিচে অবস্থান করেনতবে এই সব খেতে খাওয়া কৃষকদের (Indian Farmers) জন্য ভারতের কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের তরফ থেকে বিভিন্ন ধরনের প্রকল্পের ব্যবস্থা করা হয়পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৯ সালে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কৃষকদের জন্য কৃষকবন্ধু প্রকল্প চালু করেছিলেন। এবার এই প্রকল্পের মাধ্যমে অর্থ সাহায্যের পাশাপাশি বিশেষ কিছু সুবিধা পেতে চলেছেন রাজ্যের কৃষকরা।

মুখ্যমন্ত্রীর চালু করা এই কৃষক বন্ধু প্রকল্পের মাধ্যমে এতদিন পর্যন্ত কৃষকদের শুধুমাত্র আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হতো। রাজ্য কৃষি দপ্তরের দ্বারা পরিচালিত এই কৃষক বন্ধু প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষকরা সর্বাধিক ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত আর্থিক অনুদান পেয়ে থাকেননির্দিষ্ট পদ্ধতি মেনে ফর্ম পূরণ করে জমা দিলে বছরে মোট দুটি কিস্তিতে সরকারের তরফ থেকে কৃষকদের অ্যাকাউন্টে এই টাকা পাঠানো হয়

Krishak Bandhu prokolpo

নতুন সুবিধা: বিনামূল্যে সেচ যন্ত্র

তবে এবার কৃষির উন্নয়ন ঘটানোর জন্য এবং রাজ্যের কৃষকদের শ্রম লাঘব করার জন্য একটি নতুন ব্যবস্থা করতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। কৃষক বন্ধু প্রকল্পের অধীনে থাকা কৃষকদের এবার বিনামূল্যে দেওয়া হবে সেচ উপযোগী যন্ত্র। এই উদ্দেশ্য নিয়েই কৃষক বন্ধু প্রকল্পের অধীনে কৃষি সেচ যোজনা চালু করেছে রাজ্য সরকার। এর মাধ্যমে সম্পূর্ণ বিনামূল্য রাজ্যের কৃষকদের ফোয়ারা সেচের জন্য স্প্রিঙ্কলার এবং বিন্দু সেচের জন্যে ড্রিপ দেওয়া হবে।

পড়ুনঃ  CAA Rules: বেশ কিছু নিয়মে নাগরিকত্ব! দেখে নিন

রাজ্যের যে সমস্ত দরিদ্র কৃষিজীবী মানুষরা কৃষক বন্ধু প্রকল্পের অধীনে বিভিন্ন সহায়তা লাভ করেন তারাই নতুন এই সুবিধাটি পাবেন। বিশেষ করে রাজ্যের বাঁকুড়া জেলায় (Bankura) শুষ্ক অঞ্চলে জল সেচের কাজ করতে অনেক সমস্যায় পড়তে হয় কৃষকদের। সেই অঞ্চলের মানুষদের জল সংকট দূর করতে সেচের জন্য স্প্রিঙ্কলার এবং বিন্দু সেচের জন্যে ড্রিপ দেওয়া হবে। সাধারণত স্প্রিঙ্কলার সেচ মেশিন বসানোর জন্য মোট খরচ হয় ২০ হাজার টাকা এবং ড্রিপ সেচ মেশিনের খরচ ৭০ হাজার টাকা। তবে সরকারের তরফ থেকে এবার কৃষকদের এই দুই যন্ত্র দেওয়া হবে সম্পূর্ণ বিনামূল্য। শুধুমাত্র GST-র খরচ দিলেই কৃষকরা এই দুই যন্ত্র ব্যবহার করার সুবিধা পাবেন।

Krishak Bandhu

সুবিধা:

  • জল সেচের কাজ সহজ হবে
  • জল সংকট দূর হবে
  • কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে
  • কৃষকদের আয় বৃদ্ধি পাবে

কোথায় পাবেন?

  • কৃষক বন্ধু প্রকল্পের আওতায় আসা কৃষকরা এই সুবিধা পাবেন।
  • আবেদনের প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে কৃষি দপ্তরের ওয়েবসাইট বা নিকটতম কৃষি অফিসে যোগাযোগ করুন।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

সেচ যন্ত্রের খরচ:

  • স্প্রিঙ্কলার: ২০,০০০ টাকা
  • ড্রিপ: ৭০,০০০ টাকা
  • GST: সরকার নির্ধারিত হারে

এই নতুন সুবিধা কৃষকদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করতে এবং রাজ্যের কৃষিক্ষেত্রকে আরও সমৃদ্ধ করতে সাহায্য করবে বলে আশা করা যায়।

Written By Gupta Ajay

Gupta Ajay

নমস্কার, আমি অজয় গুপ্ত। আমি একজন কনটেন্ট রাইটার। বিগত ৫ বছর ধরে টেক, ব্যবসা, অনলাইন ইনকাম, লাইফস্টাইল ইত্যাদি বিষয়ে লেখালিখি করছি। লেখা নিয়ে কোন মতামত থাকলে কমেন্টে জানাতে পারেন। Ajay Gupta Senior Content Writter

Leave a Comment

error: Content is protected !!