Lakshmir Bhandar Scheme: লক্ষ্মীর ভান্ডার এবারে দ্বিগুণ করে দিলেন মমতা! কারা কত পাবেন, দেখুন

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ লক্ষ্মীর ভান্ডারে (Lakshmir Bhandar Scheme) বড় আপডেট। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্যের সাধারণ মানুষদের কল্যাণে বহু জনহিত প্রকল্প চালু করে রেখেছেন দীর্ঘদিন ধরেই। তার পরিচালিত বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে আর্থিক সাহায্যের মানুষরা। আর্থিক সহায়তা প্রদান করার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে প্রকল্প গুলি চালু করেছেন তার মধ্যে অন্যতম একটি হলো লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প।

Latest Update on Lakshmir Bhandar Scheme

রাজ্যের প্রতিটি বাড়ির সমস্ত মহিলাদের হাতে যাতে তাদের নিজস্ব কিছু অর্থ থাকে সেই কথাকে মাথায় রেখে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প চালু করার কথা ঘোষণা করেছিলেন। সেই সময় থেকে জেনারেল শ্রেণীভুক্ত সমস্ত মহিলারা লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের মাধ্যমে ৫০০ টাকা করে এবং তপশিলি ইত্যাদি জাতির মহিলারা ১০০০ টাকা করে অর্থ সাহায্য লাভ করতেন।

স্বাভাবিক ভাবেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প রাজ্যের মহিলাদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল। জানা গেছে গত সেপ্টেম্বর মাসে রাজ্যে যে দুয়ারে সরকার শিবির অনুষ্ঠিত হয়েছিল তার পরিসংখ্যান অনুসারে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের উপভোক্তা সংখ্যা ছিল ১ কোটি ৯৮ লক্ষ ২৭ হাজার ২১ জন। গত বছরের শেষের দিকে এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত হন আরও ৯ লক্ষ মহিলা। ফলে বর্তমানে লোকের ভান্ডার প্রকল্পের উপভোক্তার সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে দু কোটিরও বেশি।

রাজ্য সরকারের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুসারে জানা যাচ্ছে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের জন্য রাজ্যের কোষাগার থেকে মোট খরচ হতো ১০৯০ কোটি টাকা। এরপর আরো ৯ লক্ষ মহিলা এই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর ৪৫ কোটি টাকা মাসিক খরচ বাড়ে। আজ রাজ্য বাজেট ঘোষণা করার সময় লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প নিয়ে মহিলাদের জন্য বিশেষ সুখবর ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

পড়ুনঃ  Child Aadhaar: শিশুদের আধার কার্ড, সামনে এল নয়া তথ্য! দেখুন

জানা গেছে সাধারণ শ্রেণি ভুক্ত যে সব মহিলারা লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের মাধ্যমে মাসিক ৫০০ টাকা করে হাতে পেতেন তারা এবার থেকে পাবেন ১ হাজার টাকা। আর তপশিলি জাতি এবং উপজাতিভুক্তরা, যারা আগে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প থেকে ১ হাজার টাকা করে পেতেন, তারা এবার থেকে পাবেন ১২০০ টাকা। রাজ্য বাজেটে এই কথা ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই স্বাভাবিক ভাবে খুশির হাসি ছড়িয়ে পড়েছে রাজ্যের মহিলাদের মুখে।

২৫ বছর বয়সে থেকে ৬০ বছর বয়সী সকল মহিলারা এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য আবেদন যোগ্য বলে বিবেচিত হন। সরকারি সুবিধা প্রদান করার জন্য নির্দিষ্ট সময় অন্তর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে যে দুয়ারে সরকার শিবির অনুষ্ঠিত হয় সেখান থেকে সহজেই এই প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করতে পারেন মহিলারা।

আবেদনকারীর আধার কার্ড, স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর কপি, তপশিলি জাতি ও জনজাতি দের শংসাপত্র, নিজস্ব ব্যাংক অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত তথ্য এবং পাসপোর্ট সাইজের নিজের একটি রঙিন ফটোকপি ইত্যাদি তথ্য গুলি থাকলেই এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করা সম্ভব।

আরও দেখুন, এক দেশ এক রেশন কার্ড প্রকল্প, জানুন বিস্তারিত

নির্দিষ্ট পদ্ধতি মেনে ফর্ম পূরণ করে নির্দিষ্ট স্থানে জমা দিলেই সরকার মাধ্যমে ভেরিফিকেশন করা হয় এবং তারপরেই সমস্ত তথ্য সঠিক থাকলে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা পেতে শুরু করেন রাজ্যের মহিলারা। রাজ্য এবং কেন্দ্রের নানা প্রকল্প সম্পর্কে আরও জানতে দেখতে থাকুন আমাদের পরবর্তী ব্লগগুলি। ধন্যবাদ।

WBnews24x7 Desk

“Wbnews247.com” সঠিক এবং নির্ভরযোগ্য বাংলা নিউজ প্লাটফর্ম। এখানে শিক্ষা, প্রকল্প, অর্থনীতি, টেক, সরকারি কর্মচারী, টেলিকম সম্পৃক্ত সকল জানা এবং অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। “Wbnews247” এর লক্ষ্য সবার মাঝে সঠিক তথ্য ছড়িয়ে দেয়া। যদি আপনি বিভিন্ন বিষয়ে সঠিক খবর বাংলায় পেতে চান তাহলে নিয়মিত চোখ রাখুন Wbnews247.com নিউজ পোর্টালে।

Leave a Comment

error: Content is protected !!