Low Investment Business: এক ব্যবসাই পাল্টাবে জীবন! কম পুঁজি, লাভ বেশি

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ বর্তমানে এই দুর্মূল্যের বাজারে কোনো একটি জীবিকার সন্ধান করতে অনেকেই ব্যবসাকে বেছে নিচ্ছেন। আবার অনেকে স্বল্পমাইনের চাকরি করে নিজের সমস্ত চাহিদা মেটাতে না পেরে বিকল্প হিসেবে ব্যবসায় (Low Investment Business) অংশগ্রহণ করতে চাইছেন। তবে ব্যবসা করবেন ভাবলেই তো আর করা যায় না। এর জন্য দরকার একটি ব্যবসার পরিকল্পনা, ব্যবসার পুঁজি ইত্যাদি। আবার এমন একটা ব্যবসার সন্ধান অনেকে করতে চান যে ব্যবসার ব্যবসায়িক পণ্যটি সহজে নষ্ট হবে না আবার ব্যবসা শুরু করার পুঁজিও কম লাগবে।

আজ এমনই একটি ব্যবসার সন্ধান আপনাদের দেবো এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে। পুরুষ মহিলা নির্বিশেষে কম পুঁজির এই ব্যবসাটি করতে পারেন। এটি আসলে ডিজাইনার মাটির পাত্র এবং মাটির ভাঁড়ের ব্যাবসা। বর্তমানে আমাদের ভারতবর্ষে প্লাস্টিক জাতীয় পণ্য ব্যবহার করা নিষিদ্ধ হয়ে যাওয়ায় মাটির পাত্রের ব্যবসা বেশ লাভজনক হতে পারে।

Low Investment Business এর জন্য যা যা প্রয়োজন

১ লক্ষ টাকা থেকে ৪ লক্ষ টাকার মধ্যে আপনি একটি মেশিন কিনে সেই মেশিনের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে বানানো যায় মাটির ভাঁড় বা মাটির অন্যান্য পাত্র। এই পাত্র তৈরি করার জন্য প্রয়োজনীয় মাটি তো বিনামূল্যেই পাওয়া যায়। তবে মেশিন চালানোর জন্য যে বিদ্যুতের খরচ হবে সেই খরচ আপনাকে বহন করতে হবে। তবে প্রতিটি ডিজাইনার মাটির পাত্র বা ভাঁড় তৈরি করতে ১০ টাকা খরচ হলেও সেটিকে ১০০ টাকায় বিক্রি করা সম্ভব।

Business

এই পাত্রের গায়ের ডিজাইনটি যত নতুনত্ব হবে পাত্রের দামও তত বৃদ্ধি পাবে। ভারতের বহু বেকার যুবক যুবতী, মহিলা এমনকি অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তিরও মাটির পাত্রের এই ব্যবসা অনায়াসে শুরু করতে পারেন। এর জন্য যে খুব বেশি জায়গার প্রয়োজন হবে এমনও নয়। নিজের বাড়িতেই ছোট একটু জায়গা থাকলে মাটির ভাঁড় প্রস্তুতকারী মেশিন বসিয়ে এই ব্যবসা শুরু করে দিতে পারেন।

পড়ুনঃ  DA in West Bengal: সরকারি কর্মীদের বকেয়া এখনো ৩৬ শতাংশ! সমাধান কবে…

সরকার থেকেও বর্তমানে এই ব্যবসার জন্য নানা ধরনের সাহায্য করা হচ্ছে। বর্তমানে নরেন্দ্র মোদী পরিচালিত ভারতীয় কেন্দ্রীয় সরকার ভারতের মধ্যে প্লাস্টিক জাত পণ্য বর্জন করার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বিশেষ ভাবে আগ্রহী। তাই এই ধরনের ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনি বিভিন্ন স্থান থেকে বিনা সুদের লোনও পেতে পারেন। আপনার তৈরি করার জিনিসের গুণগতমান ঠিক থাকলে সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন প্রয়োজনে সেগুলি কিনে নেওয়া হবে।

সেই সঙ্গে সরকারি বিভিন্ন মেলাতেও আপনি বিনামূল্যে দোকান নিয়ে আপনার তৈরি করা পণ্যগুলি বিক্রি করে লাভবান হতে পারবেন। অনলাইনে আপনার পণ্যগুলি বিক্রি করার ক্ষেত্রেও সরকারের তরফ থেকে বিভিন্ন সহায়তা পেতে পারেন। কোনো কোম্পানির ইভেন্ট, কোনো সরকারি অনুষ্ঠান বা কোনো ধনী পরিবারের বিভিন্ন পারিবারিক অনুষ্ঠানে চা, কফি এবং লস্যি পান করার জন্য ডিজাইনার মাটির পাত্র এবং মাটির ভাঁড়ের প্রয়োজন হবে।

আপনি এই সমস্ত খোদ্দেরের কাছে আপনার তৈরি করা পণ্য বিক্রি করে মোটা টাকা আয় করতে পারবেন। এই ভাবে অল্প পুঁজিতে মাটির ভাঁড়ের ব্যবসা শুরু করে অল্প সময়ের মধ্যেই আপনার লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।

এছাড়াও এমন আরও অন্যান্য বিষয় যেমন দৈনিক খবর, প্রকল্প, ব্যবসা, অর্থনীতি, জীবন ধারা, টেক, শিক্ষা, সরকারি কর্মী ইত্যাদি নতুন নতুন আর গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের সাথে থাকার অনুরোধ রইল। প্রয়োজনে, ডান দিকে থাকা বাটনে ক্লিক করে যুক্ত হন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রুপে। ধন্যবাদ।

Written by Ajay Gupta.

Gupta Ajay

নমস্কার, আমি অজয় গুপ্ত। আমি একজন কনটেন্ট রাইটার। বিগত ৫ বছর ধরে টেক, ব্যবসা, অনলাইন ইনকাম, লাইফস্টাইল ইত্যাদি বিষয়ে লেখালিখি করছি। লেখা নিয়ে কোন মতামত থাকলে কমেন্টে জানাতে পারেন। Ajay Gupta Senior Content Writter

Leave a Comment

error: Content is protected !!